নতুন মাত্রা পত্রিকার অনলাইন ভার্সন (পরীক্ষামূলক সম্প্রচার)

 ঢাকা      সোমবার ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আওয়ামীলীগের একাংশের সংবাদ সম্মেলনে বাঁধা

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ৩:২৭ অপরাহ্ণ , ৬ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার , পোষ্ট করা হয়েছে 5 years আগে

প্রতিনিধি॥ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে পুলিশ আওয়ামীলীগের এক পক্ষের সংবাদ সম্মেলনে বাধাঁ দেয়া হয়েছে। রবিবার রবিবার দুপুরে জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও সদর আসনের প্রয়াত সংসদ সদস্য, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, বঙ্গবন্ধুর সহচর এডভোকেট লুৎফুল হাই সাচ্চুর বাসভবনে সাবেক মুক্তিযোদ্ধা সচিব মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শফিকুল আলমের নেতৃত্বাধীন জেলা আওয়ামীলীগের একটি পক্ষ এই সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করে। সংবাদ সম্মেলনে জেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য আমানুল হক সেন্টু লিখিত বক্তব্য পাঠ করার কালে সদর উপজেলা ভূমি অফিসের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট এবিএম মশিউজ্জামান, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুহম্মদ সেলিম উদ্দিন, ওসি তদন্ত আতিকুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল সাংবাদিক সম্মেলনে প্রবেশ সাংবাদিকদের সামনেই বাধাঁ দিয়ে মাইক কেড়ে নেয়। সাংবাদিক সম্মেলনের অনুমতি নেই বলে তারা সেটি বন্ধ করতে বলেন। এনিয়ে বাদানুবাদ চলে। সৃষ্টি হয়  উত্তেজনা। নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সাংবাদিক সম্মেলন করার অনুমতি নেই, অপরপক্ষও একইস্থানে সাংবাদিক সম্মেলন করার ঘোষনা দিয়েছে। এতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতির আশঙ্কা সৃষ্টি হয়েছে বলে নেতাদের সাংবাদিক সম্মেলন বন্ধ করতে বলেন। পরে পুলিশের বাধায় আওয়ামীলীগের নেতারা সাংবাদিক সম্মেলন বন্ধ করতে বাধ্য হন। এসময় সংবাদ সম্মেলনের এলাকার বাহিরে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল ও সাধারন সম্পাদক শাহাদাত হোসেন শোভনের নেতৃত্বে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সংবাদ সম্মেলনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। এরআগে সকালেই মুক্তিযোদ্ধের সংগঠক লুৎফুল হাই সাচ্চুর বাসার প্রবেশমুখে অর্ধশতাধিক পুলিশ পুলিশ অবস্থান নেয়।
সংবাদ সম্মেলনে সদর, বিজয়নগর ও পৌরসভা আওয়ামীলীগের সম্মেলনে জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শফিকুল আলম, জেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য আমানুল হক সেন্টু, জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহসভাপতি ও সাবেক মেয়র হেলাল উদ্দিন, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মিনারা আলম, জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি কাউসার আহমেদের বিরুদ্ধে বহিস্কারের প্রস্তাব উপস্থাপন করা হয়। এর জবাব দিতেই তারা এই সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব মিজানুর রহমান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি শফিকুল আলম এমএসসি, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফিরোজুর রহমান ওলিও, জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র হেলাল উদ্দিন, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মিনারা আলম, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি কাউসার আহমেদ, আওয়ামীলীগ নেতা কাজী মোবারক হোসেন, বাসুদেব ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান নেছার উদ্দিন শেরশাহ, রামরাইল ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. সেলিম প্রমুখ। সংবাদ সম্মেলনে কয়েক’শ নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

April 2024
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930  
আরও পড়ুন
অনুবাদ করুন »